Breaking News
Home / খেলাধুলা / টাইগারদের প্রস্তুতি শুরু আজ থেকে

টাইগারদের প্রস্তুতি শুরু আজ থেকে


নতুন বছর আসতেই ব্যস্ত হয়ে পড়বেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। টানা সিরিজ খেলার মধ্যে থাকতে হবে তাদের। এর আগে আজ থেকে নতুন বছরের সিরিজে খেলতে নামতে প্রস্তুতি শুরু হচ্ছে। সামনে বাংলাদেশ, জিম্বাবুইয়ে ও শ্রীলঙ্কাকে নিয়ে একটি ত্রিদেশীয় সিরিজ হবে। এরপর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের দুই ম্যাচের টেস্ট ও দুই ম্যাচের টি২০ সিরিজ রয়েছে। এ সিরিজের জন্য আজ থেকেই প্রস্তুতি শুরু করে দিচ্ছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটাররা।

আজ সকাল ৯টা থেকে প্রস্তুতি শুরু হবে। বিপ টেস্ট দিয়ে শুরু হবে প্রস্তুতি। যেখানে ক্রিকেটারদের ফিটনেস নিয়ে কাজ করা হবে। পরেরদিন দুই গ্রুপ করে জিম ও বোলিং করবেন ক্রিকেটাররা। শুক্রবার হবে রানিং। শনিবার একইভাবে অনুশীলন হবে। বছরের শেষদিনটিতে রানিং, বোলিং, ব্যাটিং সব হবে। আসল ট্রেনিং শুরু হবে আসলে ৪ জানুয়ারি থেকে। এর আগ পর্যন্ত ফিটনেস বাড়ানোর ট্রেনিংয়েই মনোযোগ বেশি থাকবে।

এ সিরিজের জন্য এরই মধ্যে ৩২ সদস্যের প্রাথমিক দল ঘোষণাও করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ঘোষিত দলে জাতীয় দলে পারফর্ম করা ক্রিকেটাররা ও বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের (বিপিএল টি২০) নৈপুণ্য দেখানো ক্রিকেটাররাও সুযোগ পেয়েছেন।

ঘোষিত দলে তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, লিটন কুমার দাস, এনামুল হক বিজয়, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক, সাদমান ইসলাম অনিক, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহীম, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, নাসির হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, সাব্বির রহমান রুম্মন, মোঃ মিঠুন, সৌম্য সরকার, মাশরাফি বিন মর্তুজা, মুস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ, শফিউল ইসলাম, আবু হায়দার রনি, আবু জায়েদ রাহি, শুভাশীষ রায়, রুবেল হোসেন, আবুল হাসান রাজু, কামরুল ইসলাম রাব্বি, তাইজুল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজ, নাজমুল ইসলাম অপু, সানজামুল ইসলাম, আরিফুল হক, মেহেদী হাসান ও সাইফউদ্দিন সুযোগ পেয়েছেন।

এবার দল গঠনে বিশেষ কোন চমক নেই। তবে পারফর্মেন্স দেখিয়ে অনিক, মেহেদীরা সুযোগ পেয়েছেন। এটি প্রাথমিক দল। এরপর সিরিজ শুরুর আগে চূড়ান্ত দল ঘোষণা করা হবে।

ট্রেনার মারিও ভিল্লাভারায়েনের তত্ত্বাবধানে শুরু হবে প্রস্তুতি। যেহেতু প্রধান কোচ থাকছে না তাই ত্রিদেশীয় সিরিজ ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের সিরিজে গেমস ডেভেলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান ও বিগত দিনগুলোতে জাতীয় দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করা খালেদ মাহমুদ সুজন টেকনিক্যাল বা টিম ডিরেক্টর হিসেবে দলের সার্বিক বিষয় দেখভালের দায়িত্বে থাকবেন। যদিও টিম ডিরেক্টর নাম দেয়া হচ্ছে। কাজ কিন্তু প্রধান কোচের মতোই করবেন।

তিন জাতির সিরিজ খেলতে আগামী ১০ জানুয়ারি ঢাকায় আসবে জিম্বাবুইয়ে। মিরপুর জাতীয় ক্রিকেট একাডেমি মাঠে ১১ ও ১২ জানুয়ারি অনুশীলন শেষে ১৩ জানুয়ারি বিসিবি একাদশের বিপক্ষে বিকেএসপির ৪ নম্বর মাঠে একটি প্রস্তুতি ম্যাচে অংশ নেবে তারা। ওইদিনই ঢাকায় এসে পৌঁছাবে শ্রীলঙ্কা। ১৫ জানুয়ারি মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে গড়াবে ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচ। যেখানে বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে জিম্বাবুইয়ের। ফাইনাল ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে ২৭ জানুয়ারি। এরপর এক এক করে ১৭ জানুয়ারি শ্রীলঙ্কা-জিম্বাবুইয়ে, ১৯ জানুয়ারি বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা, ২১ জানুয়ারি শ্রীলঙ্কা-জিম্বাবুইয়ে, ২৩ জানুয়ারি বাংলাদেশ-জিম্বাবুইয়ে ও ২৫ জানুয়ারি শ্রীলঙ্কা-জিম্বাবুইয়ের মধ্যকার ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। যে দুই দল পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে থাকবে ২৭ জানুয়ারি সেই দুই দল ফাইনালে লড়াই করবে। তিনজাতি সিরিজের সবকটি ম্যাচ মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। দিবারাত্রিতে হবে ম্যাচ।

এ তিনজাতি সিরিজ শেষে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। ৩১ জানুয়ারি চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে এ দুই দলের মধ্যকার প্রথম টেস্ট শুরু হবে। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ৮ ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় টেস্ট শুরু হবে। টেস্ট সিরিজের আগে কোন প্রস্তুতি ম্যাচ নেই।

টেস্ট সিরিজ শেষে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টি২০ সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। ১৫ ফেব্রুয়ারি মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে প্রথম ও ১৮ ফেব্রুয়ারি সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় ও শেষ টি২০ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে। টি২০ ম্যাচগুলোও দিবারাত্রিতে অনুষ্ঠিত হবে। আসন্ন দুটি সিরিজকে সামনে রেখে আজ শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেটারদের প্রস্তুতি।

About জানাও.কম

মন্তব্য করুন