বৃহস্পতিবার , নভেম্বর 14 2019
Breaking News
Home / খেলাধুলা / ঘরের মাটিতে এমন লজ্জা আগে কখনও পায়নি দক্ষিণ আফ্রিকা

ঘরের মাটিতে এমন লজ্জা আগে কখনও পায়নি দক্ষিণ আফ্রিকা


ঘরের মাঠে ছয় ম্যাচের সিরিজে প্রথম ম্যাচে ভারতের কাছে হেরে ব্যাকফুটে ছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। আর দ্বিতীয় ম্যাচ ছিল স্বাগতিকদের ঘুরে দাঁড়ানোর। কিন্তু ঘুরে দাঁড়ানোর ম্যাচে বড় হার। সাথে বড় লজ্জা যা ঘরের মাটিতে আগে কখনও পায়নি দক্ষিণ আফ্রিকা। সফরকারী ভারত যেখানে জয় বঞ্চিত ছিল, সেই তাদেরই কাছে অসহায় আত্মসমর্পণ করতে হয়েছে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার। সাথে তারা পেয়েছে ঘরের মাটিতে একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে সর্বনিম্ন রানের লজ্জা।
প্রথম ম্যাচে চোটে ছিটকে গিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি। আর তার অনুপস্থিতিতে দ্বিতীয় ম্যাচে অধিনায়কের দায়িত্ব পান এইডেন মার্করাম। তবে এই নতুন অধিনায়কের অভিষেক হল বিষাদের। অভিষেকে বরন করে নিয়েছেন বিশাল হার ও সর্বনিম্ন রানের লজ্জা।
গতকালের ম্যাচে সফরকারী ভারতের বিপক্ষে টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নামে মাত্র ১১৮ রানেই গুটিয়ে যায় স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা। ঘরের মাটিতে এতো কম রানে আগে কখনও অলআউট হয়নি দক্ষিণ আফ্রিকা। এর আগে ঘরের মাটিতে দক্ষিণ আফ্রিকা ১১৯ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২০০৯ সালে।
আর এমন হারে ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থান হারিয়ে ফেলেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। তাদের জায়গা দখলে নিয়েছে ভারত। ফলে টেস্টের পর আবার ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থান পুনরুদ্ধার করেছে ভারত।
সেঞ্চুরিয়ানে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ১১৯ রানের টার্গেটের ম্যাচে হেসে খেলে জিতেছে ভারত। ৯ উইকেটের বিশাল ব্যবধানের জয়ে ছয় ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের ০-২-এ এগিয়ে গেল ভারত।

আগের ম্যাচটি তারা জিতেছিল ৫ উইকেটে। যদিও লক্ষ্যটা ছিল মামুলি। ভারত সেটাকে টপকে গেছে অনায়াসেই। শুরুতে ওপেনার রোহিত শর্মাকে তুলে নিলেও শিখর ধাওয়ান আর বিরাট কোহলির ব্যাটিংয়ে একেবারেই সুবিধা করতে পারেননি দক্ষিণ আফ্রিকার বোলাররা। ধাওয়ান ৫১ আর কোহলি ৪৬ রান নিয়ে বিজয়ীর বেশেই মাঠ ছেড়েছেন।
চাহালের সঙ্গে ছিলেন আরেক স্পিনার কুলদ্বীপ যাদব। তাদের দ্বিমুখী আক্রমণে ঘরের মাঠে খেলেও একদমই সুবিধা করতে পারেননি দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটসম্যানরা। ৩২.২ ওভারে সব কটি উইকেট হারিয়েছে স্বাগতিকরা।
ব্যাটিং বিপর্যয়ের দিনে দক্ষিণ আফ্রিকার কোনো ব্যাটসম্যান ত্রিশের কোটাও ছুঁতে পারেননি। হাশিম আমলা (২৩), কুইন্টন ডি কক (২০), জেপি ডুমিনি (২৫), খায়ো জন্দো (২৫)- চার ব্যাটসম্যান আউট হয়েছেন বিশের ঘরে। ক্রিস মরিস করেন ১৪ রান। আর অধিনায়ক এইডেন মার্করাম ৮ রানের বেশি এগােতে পারেননি।
ভারতের পক্ষে ২২ রানে ৫টি উইকেট নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার আসল ক্ষতিটা করে দিয়েছেন যুজবেন্দ্র চাহাল। ৩টি উইকেট নিয়েছেন কুলদ্বীপ যাদব। একটি করে উইকেট ভুবনেশ্বর কুমার আর জাসপ্রিত বুমরাহর। পরে ম্যাচসেরাও হয়েছেন যুজবেন্দ্র চাহাল।

About জানাও.কম

Check Also

অভিষেক ম্যাচেই দূর্দান্ত সাদমান

চট্টগ্রাম টেস্ট জিতে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজে লিড রেখেছে বাংলাদেশ। শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে টস জিতে …

মন্তব্য করুন