Breaking News
Home / বিজ্ঞান-প্রযুক্তি / তথ্য-প্রযুক্তি / ফোরজি’র সর্বনিম্ন গতি ৭ এমবিপিএস

ফোরজি’র সর্বনিম্ন গতি ৭ এমবিপিএস


আজ থেকে ফোরজি যুগে প্রবেশ করছে বাংলাদেশ। আর এই তরঙ্গে ইন্টারনেটের সর্বনিন্ম গতি ২০ এমবিপিএস’র পরিবর্তে থাকবে ৭ এমবিপিএস। অপারেটরদের আপত্তির মুখে গতি কমানোর এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

সূত্রমতে, আগামী কয়েক দিনের মধ্যে ফোরজি বেতার তরঙ্গের ইন্টারনেটের ন্যূনতম এ গতিসীমা বেঁধে দেবে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বিটিআরসি।

ফোরজি’র কোয়ালিটি অব সার্ভিসের নির্দেশনায় এই গতির বিষয়টি উল্লেখ থাকবে। অবশ্য এ বিষয়ে গণমাধ্যমের সামনে সরাসরি কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

পরীক্ষামূলক ফোরজি নেটওয়ার্কে ইতোমধ্যেই ৫০ থেকে ৯০ এমবিপিএস গতির ডেটা ডাউনলোড করতে পেরেছে বড় তিনটি অপারেটর। যদিও গ্রাহকদের কতটা গতিতে ডেটা ডাউনলোডের সুবিধা দেবে তা এখনও প্রকাশ করেনি।

জানা গেছে, কমিশনের সর্বশেষ বৈঠকে সাত থেকে সাড়ে সাত এমবিপিএস গতি নির্ধারণের পক্ষে ঐক্যমতে পৌঁছছে উভয়পক্ষ। তবে কোয়ালিটি অব সার্ভিসেসের আওতায় যে কোনও সময় পরিবর্তনযোগ্য সুবিধা রেখে এই সর্বনিম্ন গতিসীমা প্রকাশ করতে যাচ্ছে বিটিআরসি।

প্রসঙ্গত, গত বছরের শুরুতে ফোরজির খসড়া নীতিমালা প্রণয়নের সময় আন্তর্জাতিক টেলিযোগাযোগ ইউনিয়নের সংজ্ঞা অনুসারে ৪জি’র সর্বনিন্ম গতি এক জিবিপিএস নির্ধারণ করা হয়। একই সঙ্গে এতে মহাসড়কে চলাচলকালে ও ট্রেনে ভ্রমণের সময় শুধু ইন্টারনেটের গতি সর্বনিম্ন হতে পারবে বলে উল্লেখ করা হয়।

অবশ্য ৫ এমবিপিএসের ওপরের গতির মোবাইল ইন্টারনেটকেই ফোরজি বা এলটিই হিসেবে বিবেচনা করা হয় বলে অভিমত অপারেটরদের। দেশে বর্তমানে ব্রডব্যান্ডের যে সংজ্ঞা নির্ধারণ করা হয়েছে, সেখানেও ৫ এমবিপিএস গতির কথা বলা হয়েছে।

About জানাও.কম

মন্তব্য করুন