Breaking News
Home / খেলাধুলা / বিশ্বকাপে আফগানিস্তান

বিশ্বকাপে আফগানিস্তান


আয়ারল্যান্ডে স্বপ্ন চূর করে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে অনুষ্ঠেয় আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১৯-এর মূল পর্বে জায়গা করে নিয়েছে আফগানিস্তান। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে সুপার সিক্স পর্বের শেষ ম্যাচে গতকাল আয়রিশদের ৫ উইকেটে হারিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মত ক্রিকেটের বিশ্বমঞ্চে পা রাখে আফগানরা।
সুযোগ ছিল দু’দলের সামনেই। কিন্তু জিম্বাবুয়ের হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে শেষ হাসিটা হেসেছে আফগানরাই। আফগানিস্তানের এই বিশ্বকাপের চিত্রনাট্য যে কাউকে অবাক করতে বাধ্য। এমন গুরুত্বপূর্ণ আসর তারা শুরু করে অধিনায়ক স্তানিকজাইকে ছাড়া। ওপেনার মোহাম্মাদ শাহজাদও ছিলেন দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ। গ্রæপ পর্বে যেখানে অপরাজিত থেকে সুপার সিক্সে নাম লেখায় স্কটল্যান্ড ও জিম্বাবুয়ে, সেখানে প্রথম তিন ম্যাচেই হেরে সুতোয় ঝুলতে থাকে আফগানদের বিশ্বকাপের স্বপ্ন। মিনোজ নেপালের কাছে হোঁচট খেয়ে শঙ্কায় পড়ে শেষ ছয়ের আশা। নেট রান রেটে এগিয়ে কোনমতে জায়গা হয় পরের পর্বে। এই পর্বেও শুরুতে আরেক অপেক্ষাকৃত দুর্বল দল সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছে হেরে বিশ্বকাপের স্বপ্ন ধুসর হয়ে যায় আফগানিস্তানের। সেই ধুসর স্বপ্নই এখন আফগানদের কাছে রঙিন বাস্তবতা।
নিয়ম অনুযায়ী সরাসরি বিশ্বকাপের টিকিট পায় আইসিসি ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ আট দল। বাছাইপর্বের মাধ্যমে চূড়ান্ত পর্বে পা রাখার সুযোগ ছিল দুটি দলের। দশ দলের সেই বাছাই পর্ব পেরিয়ে ক্রিকেটের বিশ্বমঞ্চে নাম লেখালো ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও আফগানিস্তান। ১৯৭৯ সালের পর এই প্রথম বিশ্বকাপের আসরে দেখা যাবে না জিম্বাবুয়েকে।
ম্যাচ শেষে অধিনায়ক আসগর স্তানিগজাই বলেন, ‘কঠিন ব্যথা নিয়েও আমি দেশের জন্যে খেলেছি। বিশ্বকাপে খেলাটা আমাদের স্বপ্ন ছিল। প্রথমার্ধে আফগানিস্তান বাখে খেলেছিল। তবে নিজেদের উপর আমাদের বিশ্বাস ছিল।’ আফগানস্তানকে অভিনন্দন জানিয়ে নিজেদের ইনিংসে ২৫ রানের মত ঘাটতি ছিল বলে জানান আইরিশ অধিনায়ক পোর্টারফিল্ড।
আসলেই তাই। টস জিতে ব্যাট করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ‘দশে মিলে’ ৭ উইকেটে ২০৯ রান করতে পারে আয়ারল্যান্ড। স্লো উইকেটে একমাত্র পঞ্চাশোর্ধো ইনিংস খেলেন ওপেনার পল স্টিয়ার্লিং (৮৭ বলে ৫৫)। ১০ ওভারে ৪০ রানে ৩ উইকেট নিয়ে এদিনও আফগানদের সেরা বোলার রশিদ খান, ২টি নেন দৌলাত জর্দান। জবাবে ১৬.৩ ওভারে ৮৬ রানের ওপেনিং জুটিতে দুর্দান্ত শুরু করে আফগানরা। কিন্তু ম্যাচ সেরা শাহজাদ ব্যাক্তিগত ৫৪ রানে (৫০ বলে) আউট হওয়ার পরই ধীর হয়ে পড়ে তাদের রানের গতি। অধিনায়ক আসগর স্তানিগজাইয়ের ২৯ বলে অপরাজিত ৩৯ ম্যাচ জয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে। ৫ বল হাতে রেখে লক্ষ্য পূরণ করে তারা।
বিশ্বকাপের দশ দল : ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, ইংল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান, বাংলাদেশ, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও আফগানিস্তান।

About জানাও.কম

মন্তব্য করুন