Breaking News
Home / আন্তর্জাতিক / মিয়ানমারকে জবাবদিহিতার আওতায় আনতে ওআইসিতে প্রস্তাব

মিয়ানমারকে জবাবদিহিতার আওতায় আনতে ওআইসিতে প্রস্তাব


রোহিঙ্গা নির্যাতনের ঘটনায় মিয়ানমারকে জবাবদিহিতার আওতায় আনতে চায় গাম্বিয়া। এ জন্য আফ্রিকার দেশটি ইসলামি সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সম্মেলনে ওআইসির মন্ত্রী পর্যায়ের একটি কমিটি গঠনের প্রস্তাব করেছে।
গাম্বিয়ার প্রস্তাবে ওআইসির জোটভুক্ত দেশগুলো সমর্থন জানিয়েছে বলে কূটনৈতিক সূত্রে জানা গেছে। ওআইসি পররাষ্ট্র মন্ত্রীদের দুদিনব্যাপী সম্মেলন গত শনিবার (৫ মে) থেকে ঢাকায় শুরু হয়েছে। সম্মেলনের শেষ দিনে রবিবার (৬ মে) ‘রোহিঙ্গা সংকটসহ ওআইসিভুক্ত দেশগুলো যে মানবিক সংকটের মুখোমুখি’ শীর্ষক একটি অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সভাপতিত্বে ওই অধিবেশনে গাম্বিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল ও আইনমন্ত্রী আবুবকর তাম্বাদুন বাংলাদেশের পক্ষে এই প্রস্তাব দেন। ওই অধিবেশনে কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ক্রিস্টিয় ফ্রিল্যান্ড বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। তিনি বলেন, রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে কানাডা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। এই সংকটের পেছনে যারা দায়ী, কানাডা সরকার তাদেরকে বিচারের মুখোমুখি দাঁড় করাতে সর্বোচ্চ শ্রম বিনিয়োগ করবে।
মুক্ত আলোচনায় অংশ নিয়ে বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরা অধিবেশনে বলেন, রোহিঙ্গা নির্যাতন এবং নিরীহ এই জনগোষ্ঠীকে বাস্তুহারা করার জন্য মিয়ানমারকে অবশ্যই জবাবাদিহীর আওতায় আনতে হবে। এ জন্য ওআইসির সদস্য দেশগুলোকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। তারা আরও বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা শুধু বাংলাদেশ-মিয়ানমার সমস্যা নয়, এটি আন্তর্জাতিক সমস্যা। সব জাতিকেই এই সমস্যার দায় নিতে হবে। বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গাকে ফিরিয়ে নিয়ে তাদের প্রতি মানবিক আচরণ করতে মিয়ানমারের প্রতি আহ্বান জানান বক্তারা। এ ছাড়া রোহিঙ্গা ইস্যুতে ওআইসির চুপ করে বসে থাকার সুযোগ নেই জানিয়ে বাংলাদেশের পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তারা। এ সসময় পররাষ্ট্র মন্ত্রী মাহমুদ আলী অভিযোগ করে বলেন, রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে বাংলাদেশ তালিকা দিলেও মিয়ানমার খুব স্বল্প সংখ্যককে ফিরিয়ে নিতে রাজি হয়েছে।
তালিকার ব্যাপারে দেশটি সমস্যা তৈরি করছে বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

About জানাও.কম

মন্তব্য করুন