Breaking News
Home / শিক্ষা / ২০২ মাদরাসা বন্ধ ঘোষণা

২০২ মাদরাসা বন্ধ ঘোষণা


টানা দুই বছর একজন শিক্ষার্থীও দাখিল পরীক্ষায় অংশ না নেওয়ায় সংশ্লিষ্ট ২০২টি মাদরাসা বন্ধ ঘোষণা করেছে মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড। এসব প্রতিষ্ঠানের অনুমতি ও একাডেমিক স্বীকৃতি বাতিলসহ অনলাইনে পাসওয়ার্ড, মাদরাসা কোড নম্বর ও ইআইআইএন নম্বর বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। চলতি বছর থেকে এসব প্রতিষ্ঠান দাখিল স্তরে কোনো শিক্ষা কার্যক্রম চালাতে পারবে না।

মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড বুধবার এসংক্রান্ত আদেশ জারি করেছে। তাতে বলা হয়েছে, বন্ধ ঘোষিত মাদরাসাগুলোতে বর্তমানে যেসব শিক্ষার্থী নবম ও দশম শ্রেণিতে পড়ছে তারা পার্শ্ববর্তী স্বীকৃতিপ্রাপ্ত অন্য মাদরাসা থেকে রেজিস্ট্রেশন করে পরীক্ষা দিতে পারবে।

এ ছাড়া চলতি বছরের দাখিল পরীক্ষায় কোনো শিক্ষার্থী পাস করতে না পারা ৯৬টি মাদরাসাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। নোটিশের জবাব পাওয়ার পর তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক এ কে এম ছায়েফ উল্যা জানান, ২০১৭ ও ২০১৮ সালে ২০২টি মাদরাসা থেকে কোনো পরীক্ষার্থী দাখিল পরীক্ষায় অংশ নেয়নি। এর কারণ দর্শাতে তাদের নোটিশ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু বেশির ভাগ মাদরাসা থেকে সেই নোটিশেরও কোনো জবাব পাওয়া যায়নি। আর যারা জবাব দিয়েছে তাদের বক্তব্যও সন্তোষজনক নয়। তাই এসব মাদরাসা বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

বোর্ড সূত্রে জানা যায়, বন্ধ হওয়া মাদরাসাগুলোর মধ্যে বাগেরহাটে চার, বরগুনায় পাঁচ, বরিশালে দুই, ভোলায় ছয়, বগুড়ায় চার, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এক, চাঁদপুরে এক, চাঁপাইনবাবগঞ্জে দুই, চট্টগ্রামে এক, কুমিল্লায় তিন, দিনাজপুরে ১৯, গাইবান্ধায় ১২, যশোরে পাঁচ, ঝিনাইদহে এক, জয়পুরহাটে দুই, খাগড়াছড়িতে এক, খুলনায় চার, কিশোরগঞ্জে এক, কুড়িগ্রামে এক, কুষ্টিয়ায় তিন, লালমনিরহাটে পাঁচ, মেহেরপুরে এক, ময়মনসিংহে চার, নওগাঁয় এক, নাটোরে ১১, নড়াইলে এক, নেত্রকোনায় এক, নীলফামারীতে তিন, নোয়াখালীতে এক, পাবনায় পাঁচ, পঞ্চগড়ে সাত, পটুয়াখালীতে সাত, রাজবাড়ীতে দুই, রাজশাহীতে ১১, রংপুরে ৯, সাতক্ষীরায় পাঁচ, সিরাজগঞ্জে ১০, সিলেটে এক ও ঠাকুরগাঁওয়ের ২৬টি প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

২৬টি স্কুল ও মাদরাসার এমপিও বন্ধ হচ্ছে : এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় শতভাগ ফেল করা ২৬ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমপিও বাতিল হচ্ছে। আগামী সপ্তাহেই এসংক্রান্ত নির্দেশনা আসতে পারে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, চলতি বছর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় সাধারণ আটটি বোর্ডের অধীন ১৬টি বিদ্যালয় ও মাদরাসা বোর্ডের অধীন ৯৬টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সব শিক্ষার্থী অকৃতকার্য হয়েছে। এর মধ্যে আট বোর্ডের সাতটি ও মাদরাসা বোর্ডের ১৯টি প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত। এসব প্রতিষ্ঠানের এমপিও বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্ত্রণালয়।

জানতে চাইলে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের (বিদ্যালয়) যুগ্ম সচিব সালমা জাহান বলেন, ‘আমরা শিক্ষা বোর্ডগুলো থেকে পাঠানো শোকজের উত্তর পেয়েছি। তা যাচাই-বাছাই করা হয়েছে। আমরা মনে করি, শতভাগ ফেল করা প্রতিষ্ঠানের কোনো প্রয়োজন নেই। তাই তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত হচ্ছে। এগুলোর মধ্যে যেসব প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত তাদের এমপিও বাতিল করা হবে। আর নন-এমপিওভুক্তদের অনুমোদন ও স্বীকৃতি বাতিল করা হবে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এমপিও শাখায় এ বিষয়ে চিঠি দেওয়া হবে।’

About জানাও.কম

মন্তব্য করুন