Breaking News
Home / খেলাধুলা / ৯০ মিনিটেই লণ্ডভণ্ড বাংলাদেশ

৯০ মিনিটেই লণ্ডভণ্ড বাংলাদেশ


মাত্র দেড় ঘণ্টা সময়। এর মধ্যেই টর্নেডো, নার্গিস, সাইক্লোন সব আঘাত এসে আঁচড়ে পড়লো বাংলাদেশের উপর। মাত্র ৯০ মিনিটের ঝড়েই লণ্ডভণ্ড হয়ে গেল সব। প্রচণ্ড এই ঝড়ের নাম হতে পারে ‘কেমার রোচ’ও। এমন মহাদুর্যোগের মুখে বাংলাদেশ শেষ কবে পড়েছিল কিংবা আদৌ পড়েছিল কিনা সেটা পরিসংখ্যান ঘেটেই বলতে হবে। বাংলাদেশের ১১ জন ব্যাটসম্যানের ওপর সেই তাণ্ডবলীলা চালালো ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোলাররা। বিশেষত, কেমার রোচ। বল নয়, যেন এক একটি মরণবাণ এসে তামিম-সাকিব-মুশফিকদের বুকে বিদ্ধ হচ্ছিল। আর তাতে শেষ পর্যন্ত মাত্র ৪৩ রানে গুটিয়ে গেল বাংলাদেশ। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্টে যেকোনও দলের একটি সর্বনিম্ন স্কোর।

দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্টে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই বিপর্যয়ে পড়ে সফরকারী বাংলাদেশ। দলীয় মাত্র ১৮ রানে পাঁচ টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান তামিম, মুমিনুল, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ সাজঘরে ফিরেন।

বুধবার (৪ জুলাই) বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় অ্যান্ডিগায় টসে জিতে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান ক্যারিবীয়ান অধিনায়ক জেসন হোল্ডার।

শুরুটা বেশ ভালোই করেছিল দুই অপেনার তামিম ইকবাল ও লিটন দাস। তবে দলীয় ১০ রানের মাথায় কেমার রোচের বলে ব্যক্তিগত ৪ রান করে উইকেটরক্ষক শেন ডাউরিচের হাতে তালুবন্দি হন তামিম।

দলীয় ১৬ রানে রোচের দ্বিতীয় শিকার হন মুমিনুল (১)। এর পর দলীয় ১৮ রানে মুশফিক রানের খাতা খোলার আগেই আবারও কেমার রোচ তাকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে প্যাভিলিয়নে ফেরত পাঠান। স্কোরবোর্ডটাকে থামিয়ে রোচের চতুর্থ শিকার হন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। তিনিও কোনও রান করতে পারেননি। দলীয় ১৮ রানেই মাহমুদউল্লাহকে ফিরিয়ে পঞ্চম উইকেট শিকারের উল্লাসে মাতেন ক্যারিবীয় পেসার কেমার রোচ।

দলের হয়ে ঝড়ের কবলে যতটুকু লড়াই করেছেন সে কেবল লিটন দাস। তার ব্যাট থেকে এসেছে ২৫টি রান। এছাড়া বাকি চার ব্যাটসম্যান রানের খাতা খুলতে পারেননি। রুবেল হোসেন ৬ রানে অপরাজিত ছিলেন।

অন্যদিকে ক্যারিবীয়ান পেসার কেমার রোচ ৮ রানে ৫ উইকেট তুলে নিয়েছেন। হোল্ডার ২টি ও কামিন্স ৩টি উইকেট নেন।

এর আগে ২০০৭ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে কলম্বো টেস্টে ৬২ রানের ইনিংসটিই টাইগারদের আগের সর্বনিম্ন ইনিংস ছিল। আজ ‘রোচ-ঝড়ে’ সেটিও ভেঙে চুরমার হলো।

About জানাও.কম

মন্তব্য করুন