Breaking News
Home / বাংলাদেশ / আশ্বিনের গরমে কুপোকাত নগরজীবন!

আশ্বিনের গরমে কুপোকাত নগরজীবন!


জলবায়ুর পরিবর্তনে ক্রমশ পরিবর্তন হচ্ছে প্রকৃতির চরিত্রও। যতই দিন যাচ্ছে আবহাওয়া ততই বিরূপ হয়ে উঠছে। যে আশ্বিনে শরীরে খানিকটা ঠান্ডা ভর করার কথা, এখন সেই আশ্বিনে শরীর থেকে দরদর করে ঝরছে ঘাম। সকালের রোদ্দুরও শরীরে বিঁধছে তিরের ফলার মতো। বিকালের রোদ যখন মিইয়ে আসে, তখনো শরীর থেকে ঘাম ঝরতে থাকে। গরমের তীব্রতা করছে না সন্ধ্যা কিংবা রাতেও।
দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা এখনও ৩৪ থেকে ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে ওঠানামা করছে। যদিও আবহাওয়ার বৃহস্পতিবারের পূর্বাভাসে দিনের তাপমাত্রা দুই থেকে তিন ডিগ্রি হ্রাস পেতে পারে বলে বলা হয়েছে। তারপরেও প্রচণ্ড গরমে কোথাও স্বস্তি মিলছে না। অস্থির হয়ে উঠেছে নগরজীবন।
বুধবার ঢাকায় সর্বোচ্চ ৩৬.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। গতকাল রাতে একপশলা বৃষ্টি হয়ে অতিষ্ঠ মানুষের জীবনে কিছুটা স্বস্তি আনলেও আজ সকাল থেকে আবারও বেড়েছে গরমের তীব্রতা। তবে আজ আবহাওয়া অধিদপ্তর যে পূর্বাভাস দিয়েছে তাকে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে বলে বলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ছয়টায় ঢাকায় ২৭.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। এই সময় বাতাসের আদ্রতা রেকর্ড করা হয়েছে ৯৬ শতাংশ।
এদিকে আবহাওয়ার আজকের পূর্বাভাসে দেশের চার সমুদ্রবন্দরকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।
আবহাওয়া অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, পূর্ব মধ্য বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত লঘুচাপটি ঘনীভূত হয়ে সুস্পষ্ট নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। এ কারণে উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এজন্য কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের কারণে আজকালের মধ্যে বৃষ্টি হলে তাপমাত্রা কিছুটা কমতে পারে।

About জানাও.কম

মন্তব্য করুন