সোমবার , অক্টোবর 21 2019
Breaking News
Home / সম্পাদকীয় আর্কাইভ / পরিবহন ধর্মঘট কারা ডেকেছে – এরা কারা ? ভীন দেশের কেউ !!!

পরিবহন ধর্মঘট কারা ডেকেছে – এরা কারা ? ভীন দেশের কেউ !!!

আজকের সম্পাদকীয়তে – লেখক ঠাকুরমাহমুদ

পরিবহন ধর্মঘটে পরিবহন শ্রমিকরা সাধারণ গাড়ি চালকদের চেহারায় পোড়া মোবিল লাগিয়ে দিচ্ছে সাথে কান ধরে উঠবস করাচ্ছে।
এই দেশ দাবী আদায়ের দেশ, এই দেশ ধর্মঘটের দেশ, ধর্মঘট আর হরতাল করে করে অচল করে দেওয়ার দেশ “বাংলাদেশ”! হরতাল, অবরোধ, ধর্মঘট – নাগরিক অধিকার ? শাপলা চত্বর আন্দোলোন, শাহবাগ আন্দোলোন, কোটা আন্দোলোন, ছাত্র আন্দোলোন আরো কতো কি? আর একদল মানুষ সেই আন্দোলোনকে আস্কারা দেন “ঘরে বসে বসে ইলেক্ট্রনিক আর প্রিন্ট মিডিয়াতে” ! ছাত্রছাত্রী রাস্তা দখল করে নিয়েছে, রাস্তার মোড়ে মোড়ে এসএসসি এইচএসসি পড়া ছেলেমেয়ে লাঠি সোঠা হাতে দাড়িয়ে থাকে – দেশে প্রশাসনের প্রয়োজন নেই ! ছাত্রছাত্রী দেশের সড়ক ও জনপথ নিয়ন্ত্রন করবে ! পরিবহন ধর্মঘট কারা ডেকেছে – এরা কারা ? ভীন দেশের কেউ ! ধর্মঘটের পথ তো খোলা আছে – এখন দেশের ছাত্রছাত্রীরাও কাউন্টার ধর্মঘটের ডাক দিক – আর আপনারা ঘরে বসে বসে ব্লগে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে, আর ইউটিউবে তাদের ইন্ধন দিন – “যদি তুমি ভয় পাও,তবে তুমি শেষ। যদি তুমি রুখে দাড়াও, তবেই তুমি বাংলাদেশ” – বাংলাদেশকে সবাই মিলে অচল করে দিন, অন্ধকার ভূতুরে দেশ করে দিন, তাইতো চাচ্ছেন আপনারা সবাই মহাজ্ঞানী মহাজন ! আর দোষ দিবেন প্রশাসনকে ! পরিবহন ধর্মঘট কারা ডেকেছে – পরিবহন শ্রমিক আর তারাও ছাত্রছাত্রীদের মতো নাগরিক অধিকার চায় – সবাই নাগরিক অধিকার চায় আন্দোলোনের পথে – – – – – ! তাতে দেশের ক্ষতি যতোই হোক তাতে কার কি আসে যায় !!! !!! !!!

তাহলে এই দেশ নিয়ন্ত্রন করবে কারা – “অর্ধ শিক্ষিত, মূর্খ্য, গন্ড মূর্খ্য ব্লগার, ফেসবুকার, ইউটিউবার” ! দেশের যেকোনো পরিস্থিতিতে “ব্লগ, ফেসবুক ও অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সহ ইউটিউবে” সবাই যার যার মতো রঙ বেরঙে পোষ্ট দিয়ে যাচ্ছে, দেশে ১৭ কোটি মানুষের মাঝে ১০ কোটি মানুষের হাতে ক্যামেরা মোবাইল ফোন সেট – এরা সবাই ফটো/ভিডিও সাংবাদিক, এরা সবাই ফেসবুকার, ব্লগার, ইউটিউবার – কি সাংঘাতিক আর কি ভয়ংকর পরিস্থিাতিতে আছে দেশ । – আমরা দেখতে পাচ্ছি বর্তমান পরিস্থিতি, ভবিষ্যত কি তাহলে আরো খারাপ ? হয়তোবা- হতেও পারে “একদিন সবকিছু নষ্টদের অধিকারে চলে যাবে” !

যবনিকা ও গালা গালী সমাচার: – বাংলাদেশের মানব সমাজে যেকোনো অপকর্মে একজন মানুষ আরেকজন মানুষকে “কুকুরের বাচ্চা” বলে গালী দেওয়ার প্রবনতা প্রবল ! মজার ব্যাপার হচ্ছে এই দেশে কুকুর সমাজে যেকোনো অপকর্মে একজন কুকুর আরেকজন কুকুরকে “মানুষের বাচ্চা” বলে গালী দেয় বলে আমার ব্যাক্তিগত ধারণা !

About জানাও.কম

Check Also

প্রাইম মিনিষ্টার সৌদী, মোদী, বৌদিদের বিনিয়োগ কেন চায়?

আজকের সম্পাদকীয়তে – চাদঁগাজী মনে হয়, এটা বিনিয়োগের ব্যাপার নয়, আসলে কৌশলে ভিক্ষা চাওয়া; সৌদীরা …

মন্তব্য করুন