Breaking News
Home / খেলাধুলা / ব্যাটিং বিপর্যয়ে কোণঠাসা বাংলাদেশ

ব্যাটিং বিপর্যয়ে কোণঠাসা বাংলাদেশ

Bangladeshi cricketer Imrul Kayes is clean bowled by the Zimbabwe cricketer Tendai Chatara during the second day of the first Test cricket match between Bangladesh and Zimbabwe in Sylhet on November 4, 2018. (Photo by MUNIR UZ ZAMAN / AFP) (Photo credit should read MUNIR UZ ZAMAN/AFP/Getty Images)
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই চার উইকেট হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ের প্রথম ইনিংসে করা ২৮২ রানের জবাবে খেলতে নেমে ২০ রানের মাথায় চার উইকেট হারিয়ে বসে টাইগাররা। মমিনুল কিছুক্ষণ লড়াই করলেও দলীয় ৪৯ রানের মাথায় তিনিও ফিরে যান।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ২৮ ওভারে পাঁচ উইকেটে হারিয়ে ৭৫ রান। ক্রিজে আছেন আরিফুল হক ৯ ও মুশফিকুর রহিম ২৭ রানে।

বাংলাদেশ প্রথম উইকেটটি হারায় দলীয় আট রানের মাথায়। ইমরুল কায়েস পাঁচ রান করে টেন্ডাই চাতারার বলে বোল্ড হয়ে ফিরে যান সাজঘরে। তার ব্যাট থেকে আসে পাঁচ রান। আরেক ওপেনার লিটন দাসও থাকতে পারেননি বেশিক্ষণ।

ব্যক্তিগত ৯ রানে দলীয় ১৪ রানের মাথায় সাজঘরে ফিরে যান তিনি। ব্যর্থ ওয়ান ডাউনে নামা নাজমুল হোসেন শান্তও। পাঁচ রান করে চাতারার বলে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান সাজঘরে। তাইজুল ইসলামের ঘূর্ণির সামনে দাঁড়াতেই পারেনি জিম্বাবুয়ে ব্যাটসম্যানরা। ২৩৬ রান ও ৫ উইকেট হাতে নিয়ে দ্বিতীয় দিন শুরু করলেও মাত্র ৪৬ রান যোগ করে জিম্বাবুয়ে সবকটি উইকেট হারিয়ে ফেলে। তাইজুল ৬ উইকেট নিয়ে জিম্বাবুয়ের ব্যাটিং লাইনআপ একাই চূর্ণ করে দেন।

সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে টসে জিতে আগে ব্যাট করে জিম্বাবুয়ে প্রথম ইনিংসে ১০ উইকেট হারিয়ে ২৮২ রান তোলে। গতকাল শনিবার থেকে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্ট শুরু হয়। জিম্বাবুয়ের হয়ে সর্বোচ্চ ৮৮ রান করেন শেন উইলিয়ামস। হ্যামিলটন মাসাকাদজা ৫২, চাকাব্বা ২৮ ও সিকান্দার রাজা ১৯ রান করে সাজঘরে ফিরে যান। পিটার মুর ৬৩ রানে অপরাজিত ছিলেন।

টাইগারদের হয়ে প্রথম দিন তাইজুল ইসলাম দুই উইকেট নিলেও আজ রোববার জিম্বাবুয়ের পাঁচ উইকেটের চারটিই যায় তাইজুলের পকেটে। এ ছাড়া অভিষিক্ত নাজমুল ইসলাম অপুর ঝুলিতে জমা হয় দুই উইকেট। আবু জায়েদ রাহী ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ একটি করে উইকেট নেন।

প্রথম দিন ম্যাচের শুরুর দিকে টাইগার স্পিনাররা ছড়ি ঘোরালেও, সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে ম্যাচের লাগাম টেনে ধরে জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানরা। কিন্তু দ্বিতীয় দিন ঠিকই টাইগার বোলাররা আর কোনো সুযোগ দেননি জিম্বাবুয়ে ব্যাটসম্যানদের।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এ টেস্টে অভিষেক হয়েছে নাজমুল ইসলাম ও আরিফুল হকের। একাদশে সাত ব্যাটসম্যান, তিন স্পিনার ও এক পেসার নিয়ে দল সাজানো হয়েছে। দলে নেই নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। তাই অধিনায়কত্ব করছেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।

পিচ ও কন্ডিশনের কথা বিবেচনায় এনে দলে নেওয়া হয়েছে তিন স্পিনার। মেহেদী মিরাজ-নাজমুল ইসলাম-তাইজুল ইসলামের স্পিনের উপরই ভরসা রেখেছিল টিম ম্যানেজমেন্ট। তার কিছুটা সুফলও পাওয়া গেছে, জিম্বাবুয়ের ১০ উইকেটের মধ্যে ৯টিই তুলে নেন স্পিনাররা।

তবে প্রথম দিনের মতো দ্বিতীয় দিনও ব্যর্থ ছিলেন মেহেদী মিরাজ। ২৭ ওভার বল করে একটি উইকেটও নিতে পারেননি। একমাত্র পেসার হিসেবে খেলেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে অভিষেক হওয়া আনু জায়েদ রাহি।

About জানাও.কম

মন্তব্য করুন