বৃহস্পতিবার , এপ্রিল 2 2020
Breaking News
Home / শিল্প-সাহিত্য / অবশেষে একুশে বইমেলায় প্রকাশিত হতে যাচ্ছে সময়ের আলোচিত কবি সাইফ সুমনের কাব্যগ্রন্থ বিধুর বেহালা..

অবশেষে একুশে বইমেলায় প্রকাশিত হতে যাচ্ছে সময়ের আলোচিত কবি সাইফ সুমনের কাব্যগ্রন্থ বিধুর বেহালা..

কক্সবাজার প্রতিনিধি মাহবুবুর রহমান আবিরঃ গত বছর একুশে বই মেলায় প্রকাশিত মানবতার কবি হিসাবে খ্যাত সাইফ সুমনের কাব্যগ্রন্থ “বিষণ্ণ বীণা”র অবিস্মরণীয় সাফল্যের ধারাবাহিকতায় এবারের বইমেলায় প্রকাশিত হতে যাচ্ছে কবির কাব্যগ্রন্থ ‘বিধুর বেহালা’।বর্ণাঢ্য মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বিধুর বেহালার জন্য অপেক্ষারত কবিতাপ্রেমী পাঠকদের দীর্ঘদিনের প্রতীক্ষার অবসান হতে যাচ্ছে।রিদম প্রকাশনা সংস্থা থেকে প্রকাশিতব্য বইটির প্রকাশক মো: গফুর হোসেন এবং বইটির প্রচ্ছদ শিল্পি ফারিয়া হোসেন।গতবছর প্রকাশিত কবির মানবতাবাদ ও বিদ্রোহ নির্ভর “বিষণ্ণ বীণা” কাব্যগ্রন্থটি পাঠক মহলে ব্যাপকভাবে সমাদৃত হয়েছিলো।
কাব্যগ্রন্থ “বিধুর বেহালা” সম্পর্কে জানতে চাইলে কবি বলেন-“বিধুর বেহালা” কাব্যগ্রন্থটির মূল বিষয় প্রেম বিরহ,বিচ্ছেদ,দ্বন্দ্ব ইত্যাদি।তিনি বলেন ‘বিধুর বেহালা’ একটি অসমাপ্ত কাব্যগ্রন্থ।কবি শারীরিক ও মানসিকভাবে অসুস্থ থাকা সত্বেও শুধু পাঠকদের প্রতি গভীর ভালোবাসা ও দায়বদ্ধতা বিবেচনায় ‘বিধুর বেহালা’ কাব্যগ্রন্থটি পাঠকদের সামনে তুলে ধরার সর্বোচ্চ প্রয়াস চালিয়েছেন।আগামীকাল ১৮ ফেব্রুয়ারি ‘বিধুর বেহালা’ কাব্যগ্রন্থটির মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন বাংলা একাডেমীর মহাপরিচালক মহাকবি হাবিবুল্লাহ সিরাজি।এছাড়া উক্ত অনুষ্ঠানে দেশের খ্যাতনামা সাহিত্যিক,প্রকাশক,সাংবাদিক উপস্থিত থাকবেন।বইটি আগামীকাল থেকে রিমদ প্রকাশনা সংস্থার ৩৩৯ ও ৩৪০ নং স্টলে পাওয়া যাবে।এছাড়া একই তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি রাত ৯ টায় ‘বিধুর বেহালা’ কাব্যগ্রন্থটির আবৃত্তি এ্যালবামের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান ধানমন্ডির আর.আর.কে(RRK) স্টুডিওতে অনুষ্ঠিত হবে।
কোন এক হৃদিতার প্রতি,তবুও তুমিই আমার চিরন্তন,বিপ্লবী বীণা,মামনি,বিচ্ছেদ সিন্ধু,ভারপ্রাপ্ত প্রিয়তমা,বিদেহী স্বপ্ন,এ দায় কারো নয়,কাম মূর্ছনা,নেশাভরা গোলাপ,লীলাময়ী অভিসার,কামোত্তীর্ণ ফাগুন,মহাকাব্যিক প্রণয়,ফেরারি গোধূলী,ধূসর মায়া,আবছায়ায় অন্য তুমি সহ বইটিতে মোট ২০টি কবিতা রয়েছে।

কাব্যগ্রন্থটির ভুমিকায় কবি লিখেছেন-
“তুমি থাকবে মুখ থুবড়ে পড়া কোন অসমাপ্ত সস্তা কবিতার বই কিম্বা উপন্যাসের মলাটে অখ্যাত শিল্পির রংতুলিতে আঁকা প্রচ্ছদ জুড়ে ছদ্মনেশী নাম কিম্বা অবয়বে।তুমি রবে কবিতার খাতায় লেখা কালির অক্ষরের সিঁদূর দেবী হয়ে।প্রতিটি পংক্তিতে তোমার অদৃশ্য পদচারণা আমাকে জোগাবে সত্য আর কল্পনার সমানুপাতে তৈরি “কোনরকম বেঁচে থাকা”র একটা সান্ত্বনা সাহস।তুমি থাকবে “বিধুর বেহালা” কিম্বা অন্য কোন ভবিষ্যত সৃষ্টির প্রতিটি পাতায়।”

গ্রন্থটির প্রকাশক মো: গফুর হোসেন বলেন- “কবি সাইফ সুমনের ‘বিধুর বেহালা’ কাব্যগ্রন্থটি যেন তার নিজস্ব জীবনবোধ,দর্শন,অভিজ্ঞতা ও সমাজ বাস্তবতার এক নির্মম জীবন্ত প্রতিচ্ছবি।কবির বিচ্ছেদাহত জীবন্মৃত আত্মার আর্তনাদধ্বনি করুন সুর হয়ে বাঁজছে “বিধুর বেহালা” নামক শোকগাথার প্রতিটি পংক্তিতে।
আমি কবির সর্বাঙ্গীন সাফল্য,সমৃদ্ধি ও সুস্থতা কামনা করছি।কাব্যগ্রন্থ বিধুর বেহালার মান ও পাঠক গ্রহণযোগ্যতার বিষয়ে তিনি দারুনভাবে আশাবাদী।

কবি সাইফ সুমন বলেন “কোন এক হৃদিতার প্রতি” কাব্যকলার মাধ্যমে সমগ্র কাব্যগ্রন্থের মূল ভাবনা ও দর্শনকে ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেছেন। বইটির উৎসর্গে “কোন এক হৃদিতার প্রতি” লেখা আছে এবং ফিল আপ রাইটিং এ লেখা -“হৃদিতা নামের এক মায়া হরিণীর ভ্রান্ত ছলনায় শোকাবিষ্ট,আত্মবলিদানকারী কবির নিথর চোখের এক পশলা বিষণ্ণ বৃষ্টির কয়েকটি অভিশপ্ত ফোটা আর মুমূর্ষু আত্মার আর্তনাদধ্বনির বিষবাষ্পের এক রক্তাক্ত রসায়ন,একটি জীবন্ত শোকগাথা,একটি ধ্রুপদী বিচ্ছেদ কলা – বিধুর বেহালা!
এ বিষয়ে কবি সাইফ সুমনকে “কে এই হৃদিতা?”-এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি প্রশ্নের উত্তর প্রদানে কিছুটা ভিন্ন কৌশল অবলম্বন করেন এবং তিনি জানান,আগামীকাল বইটির মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানের পর সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে বিষয়টি খোলাসা করবেন।এই বইমেলায় লেখকের ৩ টি উপন্যাস প্রকাশের অপেক্ষায়।
লেখক সাইফ সুমনকে প্রকাশের আগেই ব্যাপক সমালোচিত ও বির্তকিত উপন্যাস ‘পরকীয়ানামা’ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান,খুব শীঘ্রই উপন্যাসটি প্রকাশিত হবে।তিনি উপন্যাসটি নিয়ে অনেক আশাবাদী। তিনি মনে করেন- উপন্যাসটি তার সাহিত্যিক জীবনে একটা টার্ণিং পয়েন্ট হয়ে উঠতে পারে।
পরকীয়ানামা ছাড়াও লেখকের ‘মামনি’ ও ‘অন্ধ আয়না’ নামে আরো দুটি উপন্যাস খুব শীঘ্রই একুশে বইমেলায় প্রাকশিত হতে যাচ্ছে।কর্মজীবনে একজন বিসিএস কর্মকর্তা,প্রথাবিরোধী লেখক সাইফ সুমনের উপন্যাসগুলো তার আত্মজীবনী মূলক কিনা এমন প্রশ্ন বর্তমানে সাংবাদিক,পাঠক ও সাধারণ মানুষের আলোচনার বিষয়ে পরিণত হয়েছে।এই প্রশ্নের উত্তর পেতে সবাইকে আরো কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে।

About জানাও.কম

মন্তব্য করুন