Breaking News
Home / খেলাধুলা / মিরপুরের ভিন্ন ধারার উইকেট দেখে বিস্মিত জিম্বাবুয়ে দলপতি

মিরপুরের ভিন্ন ধারার উইকেট দেখে বিস্মিত জিম্বাবুয়ে দলপতি


জানাও ডেস্কঃ উপমহাদেশের বাইরের দলতো বটেই উপমহাদেশের দলগুলোর জন্যও মিরপুরের উইকেটে অপেক্ষা করে টার্ন। স্পিন অস্ত্রে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার যে ধারা লম্বা সময় ধরে চলে আসছে বাংলাদেশে সেটা পরিবর্তনের মিশনে ভালো করেই নেমেছেন কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো। মূলত দেশের বাইরে ভালো করা ও পেসারদের প্রস্তুত করার লক্ষ্যেই এমন পরিকল্পনা।
মিরপুরে একমাত্র টেস্টেও স্পিন নির্ভর উইকেট হবে এমনটাই ধারনা করেছিল জিম্বাবুয়ে। তবে তাদের অবাক করে দিয়ে অনেকটা স্পোর্টিং উইকেট; যেখানে সুযোগ থাকবে পেসারদেরও এমন উইকেটই প্রস্তুত করা হয় আরভিন, টেইলরদের জন্য। উইকেটে টিকে থাকলেই রান করা সম্ভব এমন অবস্থায় সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন জিম্বাবুয়ে দলপতি।
উইকেট থেকে সুবিধা না পেলেও ধৈর্য্য পরীক্ষা দিয়ে টানা এক জায়গায় বল করে উইকেট তুলে নিয়েছেন বাংলাদেশ অফ স্পিনার নাইম হাসান। তার ৪ উইকেটের সুবাদেই জিম্বাবুয়ের ৬ উইকেট ফেলা সম্ভব হয়। আরভিনের সেঞ্চুরির পরও ৬ উইকেটে জিম্বাবুয়ে দিন শেষ করে ২২৮ রান তুলে। দিনের খেলা শেষ হওয়ার ১০ বল আগে সেঞ্চুরি তোলা সেট ব্যাটসম্যান আরভিন ফিরে যাওয়ায় বাংলাদেশ ভালো অবস্থানে আছে বলার সুযোগ পাচ্ছে।
স্পোর্টিং উইকেটে প্রথম দুই সেশনে ৩ উইকেট হারানো জিম্বাবুয়ে শেষ সেশনে হারায় ৩ উইকেট। জিম্বাবুয়ে দলপতি ঐ সেশন দিয়েই এগিয়ে রাখছেন বাংলাদেশকে, সাথে উইকেট নিয়েও প্রকাশ করেন বিস্ময়, ‘আজকের উইকেট যেমন ভালো ছিল, উইকেট এমন ভালো হবে আশা করিনি। আজকের উইকেট দেখে বিস্মিতই হয়েছি। সাধারণত ঢাকার উইকেট এমন হয়না। উইকেট ব্যাট করার জন্য খুবই ভালো ছিল। সেকারণেই আমি বাংলাদেশকে এগিয়ে রাখছি, আমরা ২-৩ টা উইকেট বেশি হারিয়ে ফেলেছি।’
উইকেট বিবেচনায় রান কম হয়েছে বলে মনে করেন ক্রেইগ আরভিন, ‘আমরা আজ আরো কিছু রান করলে খুশি হতাম। আমরা ইতোমধ্যেই ৬ উইকেট হারিয়েছি। আগামীকাল আমাদের স্কোরটা আরো বড় করতে হবে। বাংলাদেশের বোলাররা সারা দিন ধরেই আমাদের চেপে ধরেছিল আর শেষদিকে এসে ২-৩ টা উইকেট নিয়ে নিয়েছে।’
প্রথম সেশনের প্রথম ঘন্টায় ক্রিজে আসা দলপতি আরভিন কাটিয়ে দিয়েছেন প্রায় পুরো দিনটাই। খেলা শেষ হওয়ার ১০ বল আগে নাইম হাসানের বলে বোল্ড হয়ে ফিরতে হয় তাকে। ২২৭ বলে ১৩ চারে খেলা তার ১০৭ রানের ইনিংসে ভর করেই অবস্থান শক্তের দিকে এগোচ্ছিল সফরকারীরা। কিন্তু আউট হওয়ার পর শক্ত অবস্থানে আছে জিম্বাবুয়ে বলার উপায় নেই। দলকে টানতে হবে লোয়ার মিডল ও টেল এন্ডারদের।
দিনের শেষভাগে নিজের আউট হওয়া পিছিয়ে দিয়েছে জিম্বাবুয়েকে মনে করেন আরভিন, ‘দিনের একদম শেষ সময়ে আমার উইকেটটা আমাদের পিছিয়ে দিয়েছে। আগামীকাল আমি আর রেজিস চাকাভা ব্যাট করতে নামতে পারলে আসর্শ হতো। টিরিপানোও ব্যাট হাতে ভালো। আগামীকাল চাকাভার সাথে টিরিপানো ভালো কিছু করবে বলে মনে করি।’
আরভিনের টেস্ট ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরিটি এসেছে বাংলাদেশ তথা বিদেশের মাটিতে। তিন সেঞ্চুরির দুটিই দেশের বাইরে, প্রথম সেঞ্চুরির দেখা পান ২০১৬ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ঘরের মাঠ বুলাওয়েতে। দ্বিতীয়টি আসে ২০১৭ সালে শ্রীলঙ্কার কলম্বোতে। বিদেশের মাটিতে সেঞ্চুরি করার অনুভূতি জানাতে গিয়ে জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক বলেন, ‘দেশের বাইরে সেঞ্চুরি করা সবসময়ই স্পেশাল। এর আগে আমি বাংলাদেশে সংগ্রাম করেছি। তাই আজকে এই ইনিংস খেলে আমি খুশি।’

About জানাও.কম

মন্তব্য করুন